আবদুর রব সেরনিয়াবাত | বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

আবদুর রব সেরনিয়াবাত বাংলাদেশের রাজনীতিবিদ এবং প্রাক্তন ভূমি প্রশাসন, ভূমি সংস্কার ও ভূমি রাজস্ব ও বন্যানিয়ন্ত্রণ, পানিসম্পদ ও বিদ্যুৎ মন্ত্রী। তিনি বাংলাদেশের জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের ভগ্নিপতি এবং বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফুপা। তিনি শেখ মুজিব হত্যাকাণ্ডের সময়ে নিহত হন। তার পুত্র আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ বর্তমানে বরিশাল-১ আসনের সংসদ সদস্য। সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ তার পৌত্র।

আবদুর রব সেরনিয়াবাত | বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

 

আবদুর রব সেরনিয়াবাত | বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

 

প্রথম জীবন

আবদুর রব সেরনিয়াবাত ১৯২১ সালে বরিশালের তখনকার গৌরনদী উপজেলা বর্তমানে আগৈলঝারা উপজেলা গৈলা ইউনিয়নের সেরাল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

পেশা

তিনি বরিশালের আইনজীবী ছিলেন। তিনি পানিসম্পদ, বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও বিদ্যুৎ এবং ভুমিমন্ত্রী ছিলেন।

 

আবদুর রব সেরনিয়াবাত | বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

 

হত্যাকাণ্ড

তার বাসভবন ২৭ মিন্টো রোডে, মেজর শাহরিয়ার রশিদ, মেজর আজিজ পাশা, ক্যাপ্টেন নুরুল হুদা এবং ক্যাপ্টেন মাজেদ – এর নেতৃত্বে আনুমানিক ভোর ৫টায় আক্রমণ করা হয়। আবদুর রব-সেরনিয়াবাতের মেয়ে বেবী সেরনিয়াবাত, পুত্র আরিফ সেরনিয়াবাত, নাতি সুকান্ত বাবু, ভাগ্নে শহিদ সেরনিয়াবাত নিহত হন এবং অন্যান্যদের সাথে তার স্ত্রী জখম হন। তার পুত্র আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ দরজার পিছনে লুকিয়ে থেকে বেঁচে যান। ১৯৯৬ সালের ২১ অক্টোবর, রমনা থানায় ১৮ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। তার পুত্র আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ ১৯৯৬ সালে প্রথম, ২০১৪ সালে দ্বিতীয় বার এবং ২০১৮ সালে তৃতীয়বারের মত সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তার মিন্টো রোডের বাসভবন বর্তমানে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সদর দপ্তরের অংশ।

 

আবদুর রব সেরনিয়াবাত | বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

 

স্মরণ

তার নামে বরিশালের একটি স্টেডিয়ামের নাম রাখা হয়েছে শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত স্টেডিয়াম। এবং বরিশাল প্রেসক্লাবের নামকরণ হয়েছে শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত বরিশাল প্রেসক্লাব। একটি টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ স্থাপনা করা হয় ২০১০ সালে। এছাড়াও, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অবস্থিত কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারটি ‘শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি’ নামে নামকরণ করা হয়। বরিশালে তার নামে একটি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় রয়েছে: শহীদ আবদুর রব-সেরনিয়াবাত সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বরিশাল।

আরও দেখুনঃ

মন্তব্য করুন