আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন | বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন  হলেন একজন বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ ও সংসদ সদস্য। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়নে পটুয়াখালী-৩ আসন থেকে চার বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন | বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

 

আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন | বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

 

প্রাথমিক জীবন

জাহাঙ্গীর হোসাইন ১৯৫৪ সালের ১৮ জানুয়ারি পটুয়াখালী জেলার গলাচিপায় জন্মগ্রহণ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি এমএ ডিগ্রি সম্পন্ন করেছেন। ছাত্র জীবন থেকেই তিনি রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। তিনি স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের সময় ১৯৮১-৮৩ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। এরপর তিনি আওয়ামীলীগের সহ দপ্তর সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। জাহাঙ্গীর আওয়ামীলীগের একজন সংস্কারপন্থী নেতা ছিলেন।

 

আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন | বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

 

রাজনৈতিক

আ খ ম জাহাঙ্গীর-হোসাইন ১৯৯১, ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে পটুয়াখালী-৩ থেকে সংসদ সদস্য প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছিলেন। তিনি তিনবারই সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি প্রথম হাসিনা মন্ত্রীসভার বস্ত্র প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান ১৯৯৮ সালে। ২০০৬-২০০৮ বাংলাদেশের রাজনৈতিক সংকটকে সমর্থন ও আওয়ামী লীগে দলীয় সংস্কার চাওয়ায় তিনি ২০০৮ সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পাননি। ফলে এ আসনের মনোনয়ন পায় গোলাম মাওলা রনি। ২০১৩ সালে আওয়ামী লীগের সকল কমিটি থেকে জাহাঙ্গীরকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। পরবর্তীতে তিনি আওয়ামীলীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাৎ করে নিজের ভুল স্বীকার ও ক্ষমা চান, শেখ হাসিনা তাকে ক্ষমা করে দেন এবং ২০১৪ সাধারণ নির্বাচনে পুনরায় মনোনয়ন পান। তিনি ৫ জানুয়ারি ২০১৪ নির্বাচনে পটুয়াখালী-৩ থে‌কে আবারও সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

 

আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন | বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

 

সমালোচনা

জাহাঙ্গীর হোসাইনের নির্বাচনী এলাকা গলাচিপা ও দশমিনায় তার নিজস্ব বাহিনী রয়েছে, যার দ্বারা তিনি এলাকার মানুষের উপর নির্যাতন চালান। তার বিরুদ্ধে রিক্সাচালকে মারধর করারও অভিযোগ রয়েছে। এছাড়াও তার ভাই ২০১৬ সালের ২৬ মার্চ গলাচিপা উপজেলার গজালিয়া ইউপি কার্যালয়ে মারধরের পর এক গৃহবধূ এবং তার স্বামীর ভাতিজার মাথা ন্যাড়া করে দিয়েছিল।

আরও দেখুনঃ

মন্তব্য করুন