ঢাকা-বেইজিংয়ের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা অনুষ্ঠিত, ৪টি চুক্তি স্বাক্ষরিত

This post is also available in: বাংলাদেশ

ঢাকা-বেইজিংয়ের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা অনুষ্ঠিত, ৪টি চুক্তি স্বাক্ষরিত, সফররত চীনের স্টেট কাউন্সিলর এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই এখানে বাংলাদেশের পররাষ্টমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের মধ্যে এক ঘন্টাব্যাপী দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের পর আজ ঢাকা ও বেইজিং বিভিন্ন সহযোগিতার বিষয়ে ৪টি সমঝোতা স্মারক ও চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। সভা শেষে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম সাংবাদিকদের বলেন, স্বাক্ষরিত নথির মধ্যে অবকাঠামো উন্নয়ন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, সাংস্কৃতিক বিনিময় এবং সমুদ্র বিজ্ঞানে সহযোগিতার বিষয় অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

ঢাকা-বেইজিংয়ের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা অনুষ্ঠিত, ৪টি চুক্তি স্বাক্ষরিত

 

ঢাকা-বেইজিংয়ের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা অনুষ্ঠিত, ৪টি চুক্তি স্বাক্ষরিত

তিনি বলেন, দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে চীন তার বাজারে আরও এক শতাংশ বাংলাদেশী পণ্যের শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। শাহরিয়ার আলম বলেন, “এখানে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরের একটি বড় অর্জন হচ্ছে যে, চীন তাদের বাজারে আরো এক শতাংশ বাংলাদেশী পণ্যের শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার দেবে।”  তিনি বলেন, ১লা সেপ্টেম্বর থেকে চীনের বাজারে বাংলাদেশ ৯৯ শতাংশ শুল্কমুক্ত রপ্তানি সুবিধা পাবে।

 

ঢাকা-বেইজিংয়ের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা অনুষ্ঠিত, ৪টি চুক্তি স্বাক্ষরিত

 

আলম বলেন, চীনের মন্ত্রী বাংলাদেশের সঙ্গে অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য ব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা শুরু করার বিষয়েও আগ্রহ দেখিয়েছেন। বৈঠকে ওয়াং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক অগ্রগতির ভূয়সী প্রশংসা করেন। উভয় পক্ষ দ্বিপাক্ষিক, আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক সমস্যা নিয়ে আলোচনা করেছেন এবং ঢাকা ও বেইজিংয়ের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে নতুন মাত্রায় উন্নীত করার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। আলম বলেন, চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিদ্যমান তাইওয়ান ইসু্যুতে চীনের অবস্থান সম্পর্কে অবহিত করেন এবং “এক চীন” নীতিতে বাংলাদেশের অবস্থানের প্রশংসা করেন।

 

ঢাকা-বেইজিংয়ের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা অনুষ্ঠিত, ৪টি চুক্তি স্বাক্ষরিত

 

রোহিঙ্গা সঙ্কট সম্পর্কে তিনি বলেন, ওয়াং বাংলাদেশ থেকে বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে প্রত্যাবাসন শুরু করার জন্য একটি সমাধান খুঁজতে তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করার জন্য তার দেশের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেছেন। ওয়াং দুপুরে ঢাকা ছাড়ার আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন। চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী গতকাল বিকেলে এখানে পৌঁছালে কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মুহাম্মদ আবদুর রাজ্জাক তাকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে স্বাগত জানান।

ওয়াং শনিবার সন্ধ্যায় ধানমন্ডি-৩২-এ বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করেন এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। শাহরিয়ার আলম বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানান ।

আরও দেখুনঃ

This post is also available in: বাংলাদেশ

মন্তব্য করুন