ফরিদুল হক খান । বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ

ফরিদুল হক খান আওয়ামী লীগের মনোনয়নে জামালপুর-২ আসন থেকে নির্বাচিত নবম, দশম এবং একাদশ জাতীয় সংসদের সদস্য। তিনি ইসলামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্বও পালন করছেন।

ফরিদুল হক খান । বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ

 

ফরিদুল হক খান । বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ

 

প্রাথমিক জীবন

ফরিদুল -হক খান ১৯৫৬ সালের ২ জানুয়ারি পূর্ব পাকিস্তানের জামালপুর জেলার ইসলামপুর উপজেলার উত্তর সিরাজাবাদ গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম মো: হাবিবুর রহমান খান ও মাতার নাম ফাতেমা খানম। তিনি উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত পড়াশুনা করেছেন।

কর্মজীবন

ফরিদুল হক খান ২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি জাতীয়তাবাদী দলের সুলতান মাহমুদ বাবুকে পরাজিত করে বিজয়ী হয়েছিলেন। তিনি ৯ম জাতীয় সংসদের বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সদস্য ছিলেন। ফরিদুল খান ২০১৪ সালে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পুনরায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি ১০ম জাতীয় সংসদের স্বরাষ্ট মন্ত্রণালয় সম্পকির্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ছিলেন।

 

ফরিদুল হক খান । বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ

 

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয হচ্ছে বাংলাদেশ সরকারের একটি মন্ত্রণালয়, যেটি বাংলাদেশে ধর্মীয় কার্যাবলী, অনুষ্ঠান, ভবন এবং হজ্জের সুষ্ঠু পরিচালনার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত।

ইতিহাস

বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর ধর্ম বিষয়ক কার্যক্রম প্রথমে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে শুরু হয়। অতঃপর এ মন্ত্রণালয়ের ক্রীড়া, সংস্কৃতি ও ধর্ম মন্ত্রণালয়ের আওতাভুক্ত ছিল। ২৫ জানুয়ারি, ১৯৮০ সালে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় একটি পৃথক মন্ত্রণালয় হিসেবে যাত্রা শুরু করে।

 

ফরিদুল হক খান । বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ

 

১৯৮৪ সালের ৮ মার্চ মন্ত্রণালয়টির নামকরণ করা হয় Ministry of Religious Affairs and Endowment। পরবর্তীতে ১৯৮৫ সালের ১৪ জানুয়ারি উক্ত নাম পরিবর্তন করে পুনরায় মন্ত্রণালয়ের নামকরণ করা হয় Ministry of Religious Affairs তথা ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়। ১৯৮০ সালে কার্যক্রম শুরুর পর হতে স্বতন্ত্র মন্ত্রণালয় হিসেবে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় ইসলামিক ফাউন্ডেশন, ওয়াকফ প্রশাসকের কার্যালয়, হজ্জ অফিস ঢাকা, হজ্জ অফিস, জেদ্দা/ মক্কা, হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট,খ্রিষ্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট এবং মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন শাখার মাধ্যমে সরকারের ধর্ম বিষয়ক সকল কার্যক্রম পরিচালনাসহ দপ্তরগুলোর কার্যক্রমের মনিটরিং ও সমন্বয় করে থাকে।

আরও দেখুনঃ

মন্তব্য করুন