মাহবুব আলী । বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ

মাহবুব আলী (জন্ম ১৭ জুলাই ১৯৬১) একজন বাংলাদেশি আইনজীবী এবং রাজনীতিবিদ যিনি শেখ হাসিনার চতুর্থ মন্ত্রিসভায় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের আপিল বিভাগের একজন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী।

মাহবুব আলী । বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ

 

মাহবুব আলী । বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ

 

প্রারম্ভিক জীবন

মাহবুব- আলী ১৯৬১ সালের ১৭ জুলাই হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলার বুল্লা ইউনিয়নের বানেশ্বর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম মৌলানা আছাদ আলী এবং মাতা হোসনে আরা বেগম। আছাদ আলী ছিলেন বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের অন্যতম সংগঠক এবং তৎকালীন পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য। মাহবুব আলী স্থানীয় আন্দিউড়া উম্মেতুন্নেছা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক ও বিএ ডিগ্রি অর্জন করেন। পরবর্তীতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিদ্যায় স্নাতক (এলএলবি) লাভ করেন।

 

মাহবুব আলী । বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ

 

কর্মজীবন

কর্মজীবনে মাহবুব আইন পেশায় যুক্ত হন এবং ১৯৭৯ সালে ঢাকা বারের সদস্য পদ লাভ করেন। ১৯৮৬ সালে বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টে আইনজীবী হিসেবে কাজ শুরু করেন। তিনি ১৯৯৬ থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত সহকারী এটর্নী জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি আইনজীবীদের সংগঠন ‘সুপ্রিম কোর্ট বার এ্যাসোসিয়েশন’-এর ২০০৩-২০০৪ মেয়াদে সম্পাদক ছিলেন। বর্তমানে তিনি আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

রাজনৈতিক জীবন

মাহবুব -আলী ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজে অধ্যয়নকালীন বাংলাদেশে ছাত্রলীগে যোগদান করেন এবং কলেজ ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক (জিএস) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ছাত্রজীবন শেষ করে তিনি আওয়ামী লীগের রাজনীতে যুক্ত হন। ২০১৪ সালে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হবিগঞ্জ-৪ আসন থেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে ১,২২,৪৩৩ ভোট পেয়ে সাংসদ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একই আসন থেকে নির্বাচিত হন এবং ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি শেখ হাসিনার চতুর্থ মন্ত্রিসভায় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন।

 

মাহবুব আলী । বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ

 

ব্যক্তিগত জীবন

ব্যক্তিগত জীবনে মাহবুব -আলী শামিমা জাফরিনের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। এই দম্পতির দুই কন্যা সন্তান রয়েছে।

আরও দেখুন:

মন্তব্য করুন