রূপসা উপজেলা, খুলনা

This post is also available in: বাংলাদেশ

খুলনার রূপসা উপজেলা আয়তনে ১২০.১৫ বর্গ কি.মি। ১৪ সেপ্টেম্বর ১৯৮৩ ইং তারিখে উপজেলাটি স্থাপনের সময় রূপসা নদীর নাম অনুসারে নামকরন করা হয়েছে। ভৈরব নদের সাথে রূপসা উপজেলা তথা খুলনার ইুতহাস ওতোপ্রতভাবে জড়িত। বস্তুত: ব্যবসা কেন্দ্র হিসাবে খুলনার যাত্রা ভৈরবকে কেন্দ্র করেই। ভৈরব দক্ষিনাঞ্চলের সবচেয়ে দীর্য়্য নদী। এক সময় ভয়ংকর মুর্তি ছিল এই নদীর। এভন সেই তান্ডব রূপস আর নেই। ভৈরবের উৎপত্তি এই রূপসায়।

Rupsha Upazila Map Khulna রুপসা উপজেলা ম্যাপ খুলনা রূপসা উপজেলা, খুলনা

মালদহের মধ্যদিয়ে শ্রুতকীর্তি নদ যেখানে পদ্মায় পড়েছে তার উল্টো দিক থেকে ভৈরবের শুরু। কিছু দুর এসে জলঙ্গী নদীর সাথে মিশে পরে আবার মুক্ত হয়ে মেহেরপুর, দর্শনা, কোটচাঁদপুর ও যশোর হয়ে এসছে খুলনায়। সেনের বাজারকে বায়ে ফেলে ঘুরে গেছে পূর্বে। ওদিকে দক্ষিনের পশুর নদী খুলনার পূর্ব দিকের বিল পর্যন্ত বিস্তৃত। পশ্চিমে বিল পাবলা থেকে উল্লেখিত একটা খাল দক্ষিনে ময়ুর নদীতে (মৈয়ারগাঙ্গ) মিশে।

রুপসার উত্তরে তেরখাদা উপজেলা, দক্ষিণে ফকিরহাট ও বটিয়াঘাটা উপজেলা, পূর্বে মোল্লাহাট ও ফকিরহাট উপজেলা, পশ্চিমে কোতোয়ালী (খুলনা) থানা ও বটিয়াঘাটা উপজেলা। প্রধান নদী হলো রূপসা, ভৈরব, আঠারোবাঁকী।

রূপসা উপজেলার প্রশাসন :

রূপসা থানাকে উপজেলায় রূপান্তর করা হয় ১৯৮৩ সালে। ইউনিয়ন ৫, মৌজা ৬০, গ্রাম ৭২। জনসংখ্যা : ১৫০১৮৫; পুরুষ ৫১.৯৮%, মহিলা ৪৮.০২%; মুসলমান ৮২.২৮%, হিন্দু ১৭.৫৫%, অন্যান্য ০.১৭%।

রূপসা উপজেলা, খুলনা
রূপসা উপজেলা, খুলনা

 

ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান :

মসিজদ ৯৫, মাজার ১, মন্দির ৬৫। উল্লেখযোগ্য প্রতিষ্ঠান: রূপসা জামে মসজিদ, আইজগাতি জামে মসিজদ, সেনেরপুকুর জামে মসজিদ।

শিক্ষার হার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান :

শিক্ষার গড় হার ৪০.৪%; পুরুষ ৪৬.৫%, মহিলা ৩৩.৬%। কলেজ ৩, মাধ্যমিক বিদ্যালয় ১১, নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয় ৫, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ৪৬, বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ১৪, মাদ্রাসা ২৩। উল্লেখযোগ্য প্রতিষ্ঠান রূপসা কলেজ, রূপসা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।

সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান :

ক্লাব ২৮, লাইব্রেরি ১, সিনেমা হল ১, নাট্যমঞ্চ ১, মহিলা সংগঠন ১২৫, এতিমখানা ৪। জনগোষ্ঠীর প্রধান পেশাসমূহ কৃষি ১৮.০২%, কৃষি শ্রমিক ১১.৮১%, ব্যবসা ২০.৯১%, পরিবহন ৬.৩৫, নির্মাণ ২.০৯%, শিল্প ২.৮৭%, চাকরি ১৭.১০%, অন্যান্য ১৪.২৫%।

জমি :

আবাদি জমি ৫৮০৫ হেক্টর, অনাবাদি জমি ২৭৪৫ হেক্টর। প্রথম শ্রেণির আবাদি জমির মূল্য ০.০১ হেক্টর প্রতি ৪৫০০ টাকা। প্রধান কৃষি ফসল ধান, পাট, মাষকলাই, সরিষা, চীনাবাদাম, আলু, আদা। বিলুপ্ত বা বিলুপ্তপ্রায় ফসলাদি নীল, তামাক, আখ।

কৃষি আবাদি জমির পরিমান
(ক) মোট আবাদী জমির পরিমান ৭,৭৬৭ হে:
(খ) এক ফসলী জমির পরিমান ১,৮৮৩ হে:
(গ) দুফসলী জমির পরিমান ৫২১৩ হে:
(ঘ) তিন ফসলী জমির পরিমান ৮৮২ হে:
(ঙ) আউশ (স্থানীয়) ১০ হে:
(চ) আউশ (উফশী) ২০ হে:
(ছ) আমন (স্থানীয়) ১৮০০ হে:
(জ) রুপাআমন (উফশী) ২২৫০ হে:
(ঝ) বোরো ৫,৮৮০ হে:
(ঞ) গম ১০ হে:

মৎস ঘের

ক) মৎস ঘেরের সংখ্যা : ৪৩৫১ টি।

খ) উৎপাদিত মাছের নাম : গলদা, বাগদা, রুই, কাতলা, পাঙ্গাস, গ্রাস কার্প, চইনিচ পুটি, সিলভার কার্প ইত্যাদি।

প্রধান ফল-ফলাদি :

আম, কাঁঠাল, জাম, কলা, পেঁপে, আনারস, নারিকেল, সুপারি, পেয়ারা, লিচু, লেবু।

মৎস্য, গবাদি পশু ও হাঁস-মুরগির খামার:

মৎস্য (গলদা চিংড়ি) ১৯০৫, গবাদি পশু ৩৩, হাঁস-মুরগি ৫৮।

যোগাযোগ :

পাকা রাস্তা ১৯ কিমি, আধা-পাকা রাস্তা ২৬ কিমি, কাঁচা রাস্তা ২৫৭ কিমি।

স্বাস্থ্য বিষয়ক:

ক) হাসপাতাল : ০১ টিখ) ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্র : ০৪ টিগ) কমিউনিটি ক্লিনিক : ২০ টিঘ) উপ-স্বাস্থ্য ক্লিনিক : নাই

শিল্প ও কলকারখানা :

খাদ্য ও খাদ্যজাত ৪৭, বস্ত্ৰ ৪, পাট ও পাটজাত শিল্প ৩, পেপার বোর্ড প্রিন্টিং ৩, ট্যানারি ও রাবার ৪ কেমিক্যাল শিল্প ৭, গ্লাস ও সিরামিক ৮, ইঞ্জিনিয়ারিং ৫৫, ওয়েল্ডিং ২৫। কুটিরশিল্প স্বর্ণকার ২৫, কামার।

হাটবাজার-মেলা :

হাটবাজার ১৬। উল্লেখযোগ্য হাটবাজার: সেনের বাজার, রূপসা বাজার, সামন্তসেনা বাজার, নতুন হাট, আলাইপুর হাট। মেলা ১। এনজিও কার্যক্রম : আশা, ব্র্যাক, গ্রামীণ ব্যাংক, প্রশিকা, জাগ্রত যুব সংঘ, সিএসএস। স্বাস্থ্যকেন্দ্র : উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ১, পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র ৫। বিলুপ্ত বা বিলুপ্তপ্রায় সনাতন বাহন পাল্কি, নৌকা, গরু ও ঘোড়ার গাড়ি।

রূপসা উপজেলার ঐতিহ্য সমূহ নিম্নরূপ :

০১। বীর শ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন ও বীর বিক্রম মুহিবুল্লার সমাধি, রূপসা ঘাট সংলগ্ন এলাকা৩ নং নৈহাটি ইউনিয়নরূপসা,খুলনা। ০২। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ এর পূর্ব পুরুষের আদিভিটা। গ্রাম : পিঠাভোগ৫ নং ঘাটভোগ ইউনিয়নরূপসা,খুলন। বিশ্ব কবি উপাধিতে ভূষিত কবিগুরু ও নোবেল বিজয়ী।
০৩। রূপসা নদীর উপর অবস্থিত খান জাহান আলী সেতু। গ্রাম:জাবুসা৩ নং নৈহাটি ইউনিয়নরূপসা,খুলনা। রূপসা উপজেলার সর্ব বৃহৎসেতু যা জেলার সংগে যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম।
০৪। ভৈরব নদী, ৪ নং টি এস বাহিরদিয়া ইউনিয়ন পরিষদরূপসা খুলনা। যা পূর্বে বাংলাদেশের সর্ব বৃহৎ নদী গুলোর মধ্যে একটি।
০৫। বিপুল সংখ্যক সী ফুডস (মাছ কোম্পানী), রূপসা ঘাট সংলগ্ন এলাকা৩ নং নৈহাটি ইউনিয়নরূপসা,খুলনা। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মৎস্য রপ্তানি করে বিপুল সংখ্যকবৈদেশিক মুদ্যা আয় করে থাকে যা অর্থনিতীর অন্যতম উৎস।

রুপসা উপজেলার ইউনিয়ন:

রুপসা উপজেলায় ৫টি ইউনিয়ন নিম্নরুপ:

১। ১নং আইচগাতী ইউনিয়ন পরিষদ
২। ২নং শ্রীফলতলা ইউনিয়ন পরিষদ
৩। ৩নং নৈহাটি ইউনিয়ন পরিষদ
৪। ৪নং টি এস বাহিরদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ
৫। ৫নং ঘাটভোগ ইউনিয়ন পরিষদ

আরও পড়ুন:

খুলনা জেলার নদ নদী

This post is also available in: বাংলাদেশ

মন্তব্য করুন